প্রশাসনের তৎপরতায় জুড়ীতে বেড়েছে মাস্কের ব্যবহার

দৈনিক জনকণ্ঠ
প্রকাশিত নভেম্বর ৩০, ২০২০
প্রশাসনের তৎপরতায় জুড়ীতে বেড়েছে মাস্কের ব্যবহার

স্টাফ রিপোর্টার: প্রশাসনের তৎপরতায় জুড়ীতে করোনাভাইরাস প্রকোপের শুরুর পর সবাই মাস্ক পরিধানে অভ্যস্ত হয়ে ওঠেন। কিন্তু বর্তমানে ক্রমশ অনেকের মধ্যেই মাস্ক ব্যবহার না করার প্রবণতা দেখা যাচ্ছে। মৌলভীবাজার জেলার জুড়ীতে মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিত করণে ও করোনার দ্বিতীয় ডেউ মোকাবেলায় বিগত কয়েক দিন যাবত উপজেলা প্রশাসন অভিযান অব্যাহত রেখেছে।জেলা প্রশাসকের নির্দেশে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করছে উপজেলা প্রশাসন।

মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিত প্রশাসনের নিয়মিত অভিযানের ফলে মানুষের মধ্যে বেড়েছে সচেতনতা। বেড়েছে মাস্ক পরার প্রবণতাও। মাস্ক ছাড়া এখন অনেকেই ঘর থেকে বের হচ্ছেন না।

উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, বিগত এক সপ্তাহে উপজেলা নির্বাহী আল-ইমরান রুহুল ইসলাম ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোস্তাফিজুর রহমানের নেত্বৃত্বে উপজেলায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে প্রায় ১৫০ টি মামলা করে জরিমানা করা হয়।

সরেজমিনে জুড়ী শহরের আশপাশের কয়েকটি এলাকা চৌমুহনী ঘুরে দেখা যায়, মানুষ এখন আগের থেকে অনেক সচেতন। কয়েকদিন আগেও যেখানে মানুষের মুখে মাস্ক দেখা যেত না প্রশাসনের কঠোর পদক্ষেপের ফলে এখন মাস্ক ছাড়া কেউ বের হচ্ছেন না।আর যারা মাস্ক ছাড়া ঘর থেকে বের হচ্ছেন তারা অভিযানের আতঙ্কে দোকান থেকে মাস্ক কিনে ব্যবহার করছেন।জুড়ী বাজারে বিভিন্ন ফার্মেসি ও স্টেশনারি দোকান গুলোতে মাক্স মাস্কের বিক্রি অনেক গুনে বেড়ে গেছে।

 

জনতা মেডিসিন কর্ণার এর স্বত্বাধিকারী আসুক আহমেদ বলেন, আগের তুলনায় বর্তমানে মাস্ক বিক্রি বেড়েছে এবং ওষুধ যারা ক্রয় করতে আসছেন তারাও মাস্ক পরে দোকানে আসছেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার আল-ইমরান রুহুল ইসলাম বলেন, করোনার দ্বিতীয় ডেউ মোকাবেলায় মাস্ক পরা ও অন্যান্য স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করতে মোবাইল কোর্ট পরিচালিত হচ্ছে। এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে। অভিযানের ফলে মানুষজন ঘর থেকে বের হলে মাস্ক পরছে এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলাফেরা করছে।

শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন